প্রতিটি দুর্ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে বুঝিয়ে দেয়, একটি দুর্যোগ প্রতিরোধে আমাদের সক্ষমতার ঘাটতি। প্রতিদিনই ছোট-বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটছে। কিন্তু আমরা কি সচেতন হচ্ছি?

বাস্তবতা হচ্ছে,-না। আসলেই আমরা ব্যক্তি পর্যায়ে যেমন সচেতন হই না, তেমনি কোনো বড় দুর্ঘটনা মোকাবেলায় জান-মাল রক্ষায় সেভাবে সক্ষমতা ‍অর্জন করতে পরিনি।

এই যখন বাস্তবতা, জানিনা কখন কোন ভবনে আগুনে লাগে। তাই নিচের সতর্কতা অবলম্বনের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ:

•    ছাদে না উঠে সিঁড়ি দিয়ে নিচের দিকে নামতে হবে
•    ওপর থেকে নিচে লাফ দেওয়া যাবে না
•    নিজের শরীরের পোশাকে আগুন লাগলে দুই হাতে মুখ ঢেকে মাটিতে গড়াগড়ি দিন। দৌঁড়াবেন না, দৌঁড়ালে আগুন বেড়ে যাবে
•    আগুনে আক্রান্ত ব্যক্তিকে ভেজা অথবা মোটা কাপড় দিয়ে জড়িয়ে ধরুন, আগুন নিভে যাবে
•    পোড়া জায়গায় পর্যাপ্ত পানি ঢালুন। রোগীকে দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা নিন
•    প্রতিটি বাড়িতে, গাড়িতে, অফিসে প্রাথমিক চিকিৎসা বক্স সংরক্ষণ করুন
•    ভবনে ও গাড়িতে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র রাখুন
•    বছরে অন্তত দু’বার বিদ্যুত ও গ্যাসের লাইন চেক করিয়ে নিন।
•    ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স থেকে অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্র ব্যবহারের প্রশিক্ষণ নিন।
•    জরুরি অবস্থায় আতঙ্কিত না হয়ে সাহসের সঙ্গে মোকাবিলা করুন এবং সাহায্যের জন্য ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সকে খবর দিন।
গাড়িতে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কন্ট্রোল রুমের টেলিফোন নম্বর (০২-৯৫৫৫৫৫৫ অথবা ০১৭৩০৩৩৬৬৯৯) দৃশ্যমান স্থানে বড় অক্ষরে লিখে রাখুন।

এছাড়া পুলিশ, অ্যাম্বুলেন্স ও ফায়ার সার্ভিসের দ্রুত সেবা পেতে ৯৯৯-এ ফোন করতে পারেন। 

তথ্য সুত্র : ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স।